সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২২ ৯:০৪ অপরাহ্ণ || ডেইলিলাইভনিউজ২৪.কম

সুস্বাস্থ্যের জন্য নিয়মিত হাঁটুন

আমরা জানি, হাঁটা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। আমরা যদি প্রতিদিন নিয়ম করে হাঁটি, তবে বেশকিছু উপকারিতা মিলবে। শরীর ভালো থাকার পাশাপাশি কমবে ওজনও। যাদের পক্ষে ভারী কোনো ব্যায়াম করা সম্ভব নয়, তাদের ওজন কমানোর জন্য প্রতিদিন হাঁটার অভ্যাস করতে হবে।

নতুন এক গবেষণায় দেখা গেছে যে. খাওয়ার পরে হাঁটলে অতিরিক্ত উপকার পাওয়া যায়। দিনের যেকোনো সময়ই কি হাঁটা যায়? নাকি নির্দিষ্ট কোনো সময় রয়েছে যখন হাঁটলে সবচেয়ে বেশি উপকার পাওয়া যায়? দিনে ঠিক কতক্ষণ হাঁটা প্রয়োজন? এ সম্পর্কে বিস্তারিত প্রকাশ করেছে ইন্ডিয়ান টাইমস-

সেরা সময়
দিনের যো কোনো সময়েই হাঁটা শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। ওজন কমানোর জন্য খাওয়ার পরে হাঁটতে পারেন। ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতেও খাওয়ার পরে হাঁটা ভালো। যাদের কোনো শারীরিক সমস্যা নেই, তারা নিরোগ ভবিষ্যতের জন্য প্রতিদিনই হাঁটতে পারেন।

কীভাবে হাঁটবেন
বাড়িতে হাঁটাচলা এবং কাজকর্ম করার ফলে নির্দিষ্ট পরিমাণ ক্যালোরি আমরা রোজ বার্ন করি। একে বলে রেস্টিং মেটাবলিজম। এর সঙ্গে আমরা ব্যায়াম বা জগিং করলে বা হাঁটাহাঁটি করলে অতিরিক্ত ক্যালোরি বার্ন হয়। আপনি যত নড়াচড়া বাড়াবেন, তত বেশি ক্যালোরি বার্ন হবে।

প্রতিদিন দ্রুত পায়ে বেশ কিছুক্ষণ হাঁটলে শুধু যে ওজন কমে তাই নয়, এর ফলে ব্লাড সুগার লেভেলও নিয়ন্ত্রণে থাকে। প্রতিদিন খাওয়ার পরে দশ মিনিট হাঁটলে ডায়াবিটিস রোগীদের রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে থাকে। দিনের যেকোনো সময় টানা ত্রিশ মিনিট হাঁটার থেকে খাওয়ার পরে দশ মিনিট হাঁটা অনেক বেশি কার্যকরী।

হাঁটার সময় আমাদের হার্টরেট বেড়ে যায় এবং মাসল শরীরে জমে থাকা কার্বোহাইড্রেট বা সুগার থেকে এনার্জি সংগ্রহ করে। খাওয়ার পরে হাঁটলে আপনার খাবার থেকে শরীর যে কার্বোহাইড্রেট সংগ্রহ করেছে, সেখান থেকে মাসল এনার্জি সংগ্রহ করে। ফলে অতিরিক্ত কার্বস শরীরে ফ্যাটের আকার নিতে পারে না। আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন জানাচ্ছে যে সপ্তাহে ১৫০ মিনিট হাঁটলে তা আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে উপকারী।

Comments

comments

সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী আর নেই

আকবর আলি খান আর নেই

রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ আর নেই

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!