মার্চ ২৪, ২০২৩ ২:০১ পূর্বাহ্ণ || ডেইলিলাইভনিউজ২৪.কম

কদমতলী থানার উদ্যোগে ৩ হাজার মানুষকে মাস্ক বিতরণ

আবারো বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। কোভিড-১৯ প্রতিরোধে ভ্যাকসিন কার্যক্রমের মধ্যেই সম্প্রতি আক্রান্ত আর মৃত্যুর হার বেড়ে গেছে। এ অবস্থায় করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে আবারো মাঠপর্যায়ে তৎপরতা শুরু করেছে পুলিশ। জনসাধারণকে মাস্ক পরতে ও স্বাস্থ্যবিধি মানতে উদ্বুদ্ধ করতে মাস্ক পরার অভ্যেস, করোনামুক্ত বাংলাদেশ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে দেশব্যাপী পুলিশের বিশেষ কর্মসূচি শুরু হয়েছে।

কর্মসূচি শুরুর প্রথম দিনে ( রোববার, ২১ মার্চ ২০২১) রাজধানীর কদমতলী থানার বিভিন্ন এলাকায় ৩ হাজার মানুষের মধ্যে মাস্ক বিতরণ করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কদমতলী থানা পুলিশ।

এদিন সকাল থেকে কদমতলী থানার বিভিন্ন এলাকায় মাস্ক বিতরণের কার্যক্রমের নেতৃত্ব দেন কদমতলী থানার জনবান্ধব অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জনাব মোঃ জামাল উদ্দিন মীর।

জামাল উদ্দিন মীর বলেন, দেশব্যাপী করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় বাংলাদেশ পুলিশের মাস্ক বিতরণ কার্যক্রম আজ থেকে শুরু হয়েছে। আমরা মূলত জণগণের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে মাস্ক বিতরণ করছি। অনেকেই যারা রাস্তায় মাস্ক ছাড়া চলাচল করছেন, তাদেরকে মাস্ক বিতরণ করছি।

তিনি বলেন, অনেকেই ইতোমধ্যে টিকা নিয়েছেন। কিন্তু এরপরেও আমাদের সবাইকে মাস্ক পরতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশ ভালো অবস্থানে রয়েছে। আমরা আইজিপি, ডিএমপি কমিশনার ও ডিসির নির্দেশে মাস্ক বিতরণ করছি। এ সময় পথচারীরা পুলিশের এ কার্যক্রমকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, সাধারণ মানুষের মধ্যে এখন মাস্ক পরার অভ্যাসটা অনেকটা কমে গেছে। পুলিশ যদি এ কার্যক্রম অব্যাহত রাখে তাহলে করোনা সংক্রমণ কিছুটা হলেও কমবে। করোনা মোকাবিলায় শুরু থেকেই পুলিশ জনগণের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সর্বোচ্চ ঝুঁকি নিয়ে কাজ করেছেন। এবারও করোনার সংক্রমণরোধে মানুষের সঙ্গে কাজ করবে পুলিশ।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার ১৮ মার্চ, ২০২১ আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ বলেছিলেন, আগামী ২১ মার্চ থেকে ‌’মাস্ক পরার অভ্যেস, কোভিডমুক্ত বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে দেশব্যাপী বিশেষ উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচি শুরু হচ্ছে। এ কর্মসূচির আওতায় মাঠপর্যায়ে জনসাধারণকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে অনুপ্রেরণা ও উদ্বুদ্ধ করবে পুলিশ।

Comments

comments

‘নির্বাচন সামনে রেখে পরগাছা গোষ্ঠীর তৎপরতা শুরু হয়েছে’

প্রাথমিকের জন্য ৭৮ কোটি টাকার বই কেনা হচ্ছে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!